ড্রপশিপিং বিজনেস এর জন্য ১১টি বিষয় জানা অনেক জরুরী

ড্রপশিপিং বিজনেস এর জন্য ১১টি বিষয় জানা অনেক জরুরী

প্রযুক্তির উন্নতি হওয়ার সাথে সাথে অনলাইনে আয় করার প্রবণতাটাও আগের থেকে অনেক বেড়েছে আমাদের দেশের মানুষের। 

ড্রপশিপিং বিজনেস কি ধরনের বিজনেস ? এবং কি কি বিষয় জানা জরুরী এই বিজনেস করার জন্য। 

ড্রপশিপিং বিজনেস এর জন্য ১১টি বিষয় জানা অনেক জরুরী

ড্রপশিপিং আসলে কি ধরনের বিজনেস ?

এটি মূলত অনলাইন ভিত্তিক একটি বিজনেস। এখানে একজন সেলার বা ড্রপশিপার তার ওয়েবসাইটে বিভিন্ন সাইট থেকে পণ্যের ছবি দিয়ে সেল করে থাকে। এবং পণ্য ডেলিভারীর দায়িত্বটা আসল বা মূল কম্পানিরই থাকে। 

যেই ১১টি বিষয় জানতে হবে এই বিজনেস করার জন্য সেগুলো হলো। 

১. ড্রপশিপিং বেসি টু এ্যাডভান্স পর্যন্ত ধারণা থাকতে হবে। 

২. এই ধরনের বিজনেস করার জন্য ওয়েবসাইট তৈরি ও কাস্টোমাইজেশান সম্পর্কে পরিপূর্ণ দক্ষতা থাকতে হবে। 

৩. ওয়েব সাইটের মাধ্যমে কিভাবে মার্কেটিং করতে হয় সেটাও জানতে হবে। 

৪. ডিজিটাল মার্কেটিং শিখতে হবে। 

৫. আর্টিকেল মার্কেটিং জানতে হবে। 

৬. ই-বুক মার্কেটিং জানতে হবে। 

৭. সোসিয়াল মিডিয়া মার্কেটিং জানতে হবে। যেমন, ফেইকবুক, টুইটার, ইনস্ট্রাগ্রাম, পিনটারেস্ট মার্কেটিং, রেডিট মার্কেটিং সম্পর্কে জানা থাকতে হবে পরিপূর্ণ ভাবে। 

৮.  ইউটিউবের মাধ্যমে কিভাবে মার্কেটিং করা যায়। 

৯. ইমেইলের মাধ্যমে কিভাবে মার্কেটিং করা যায়। 

১০. পেইড মার্কেটিং কিভাবে করতে হয়। 

১১. ই-কমার্স সাইটে ফ্রিতেই ট্রাফিক আনার কৌশল শিখতে হবে। 


উপরের সবগেুলো বিষয়ই অনেক গুরুত্বপূর্ণ ড্রপশিপিং বিজনেসে ভালো করার জন্য। এর মধ্যে আমরা অনেকগুলো জানি তবে প্রফেশনালভাবে জানি না। মানে এই বিজনেসের জন্য কিভাবে কাজ করে বা কিভাবে কাজ করাতে হয় সেসব বিষয়ে কম জানি। 

অনলাইনে পাওয়া যায় না এরকম কোন বিষয় নেই। তাই আপনি যদি এই বিজনেসের প্রতি আগ্রহী হোন তাহলে আমি বলবো অবশ্যই অবশ্যই দ্রুতই আপনি গুগল ও ইউটিউবের মাধ্যমে এর সমাধান করে নেন। 

কিভাবে ট্রাফিক বাড়াবেন আপনার সাইটে ?

ট্রাফিক নিয়ে আসার দুইটা পদ্ধতি আছে। তা হলো, 

(ক) এসইও করে ট্রাফিক আনা যায়। 

(খ) পেইড ট্রাফিক ব্যবহার করেও ট্রাফিক আনা যায়। 


এসইও করে ট্রাফিক আসলে সেটা কননিউ আসতেই থাকে। কিন্তু পেইড ট্রাফিকসগুলো এমন যে, আপনি যদি একটিভি কমিয়ে দেন তাহলেই পেইড ট্রাফিক কমে যায়। 

আরেকটা জিনিস হলো পেইড ট্রাফিকে আপনি যদি পে করা বন্ধ করে দেন তাহলে আয় আসাটাও বন্ধ হয়ে যাবে। অথচ অরগানিক ভাবে যেই ট্রাফিক আসতো সেই ট্রাফিক কখনও ই বন্ধ হবে না। 

এই বিজনেস করার জন্য অবশ্যই আপনাকে ইন্টারন্যাশনাল পেমেন্ট গেটওয়ে সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে হবে। কারণ আপনি বাইরের পণ্য নিয়ে যখন কাজ করবেন তখন আপনাকে অবশ্যই ইন্টারন্যাশনাল পেমেন্ট গেটওয়ে ব্যবহার  করা যায়। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *